প্রকাশ্যে জিএম কাদের-রওশন এরশাদ দ্বন্দ্ব

রাজনীতি বার্তা

জাতীয় পার্টিতে আবারও প্রকাশ্য হয়ে উঠেছে নেতৃত্বের দ্বন্দ্ব। জি এম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণা দলের গঠনতন্ত্রের পরিপন্থী জানিয়ে প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়ে রওশন এরশাদ বলেছেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছোট ভাই এখনও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানই আছেন। সোমবার মধ্যরাতে এই বিজ্ঞপ্তি দেয়ার পর আজ জিএম কাদের জানান, তিনিই দলের চেয়ারম্যান। রওশন এরশাদের চিঠি নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে আবারও তিনি দাবি করেন, তার দলে কোন বিভেদ নেই।মৃত্যুর ক’দিন আগেই ছোটভাই জিএম কাদেরকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এবং নিজের উত্তরসূরি ঘোষণা করেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।গত ১৪ জুলাই রাজধানীর সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এরশাদ মারা যান। ১৬ জুলাই তাঁর দাফন সম্পন্ন হয়। এর ১ দিন পরই সংবাদ সম্মেলন ডেকে জি এম কাদেরকে দলের চেয়ারম্যান ঘোষণা করা হয়।

যদিও ঐ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন না দলের সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদসহ প্রভাবশালী অনেক নেতাই। প্রশ্ন ওঠে দলের শীর্ষ ফোরাম প্রেসিডিয়ামদের মতামত ছাড়া জিএম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করার বৈধতা নিয়ে। যদিও কাদের বরাবরই দাবি করে আসছিলেন দলে কোনো বিভেদ তৈরি হয়নি।জিএম কাদেরের এই দাবিকে অস্বীকার করে সোমবার মধ্যরাতে রওশন এরশাদ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানান, দলের শীর্ষ ফোরামে আলোচনা না করে জিএম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণা বৈধ নয়। তবে, চেয়ারম্যান নিয়োগের আগ পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারেন তিনি। এতে একাত্মতা জানান ১০ জন শীর্ষ নেতা।এমন পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) দুপুরে জিএম কাদের জানান, রওশন এরশাদের চিঠির বিষয়ে সন্দিহান তিনি। অন্য কোন নেতা এ বিষয়ে জানেন না বলেও দাবি তার।

এ সময় জিএম কাদের বলেন, ‘সত্যিকার অর্থে তিনি এই চিঠি দিয়েছেন কিনা তা নিয়ে আমি সন্দিহান। সঙ্গে দুই একজনের নাম এসেছে। তাদের সঙ্গে আমি কথা বলেছি। তারা অনেকেই বলেছেন চিঠি দেয়ার বিষয়টি তারা জানেন না। এটা বড় কোন সমস্যা না। জাতীয় পার্টি একতাবদ্ধ আছে এবং থাকবে।’জিএম কাদের আরো জানান, ২০ জুলাই রওশন এরশাদ এবং তার মধ্যে কোন রাজনৈতিক আলোচনা হয়নি।