পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে ডিজিটাল হাজিরা

খেলা বার্তা জাতীয় বার্তা

ডিজিটাল হাজিরার ব্যবস্থার সূচনা করা হলো পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে। বৃদ্ধাঙ্গুলির ছাপ দিয়ে এর উদ্বোধন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। এ ব্যবস্থার ফলে এখন দেরিতে এসে হাজিরা আগে দেখানোর কোনো সুযোগ পাওয়া যাবে না। আগে হাজিরা খাতায় ম্যানুয়ালি সই করতেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সব কর্মকর্তা-কর্মচারী। এখন এ নিয়ম বাতিল। আগস্টের প্রথম দিন থেকে নতুন নিয়ম পুরোপুরি কার্যকর হবে।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের চত্বরে গতকাল বুধবার ১০টি ভবনে ডিজিটাল হাজিরার ব্যবস্থার উদ্বোধন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। এ সময় পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মো: নুরুল আমীনও উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, ১ আগস্ট থেকে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে সকালে অফিসে প্রবেশ এবং ছুটি শেষে যাওয়ার সময় বাধ্যতামূলকভাবে ডিজিটাল হাজিরা দিতে হবে। এখন থেকে অফিস ফাঁকি দিলেই বেতন কাটা হবে। মন্ত্রী বলেন, এখন থেকে অফিসে ঢোকা ও বের হওয়ার সময় সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ডিজিটাল হাজিরায় বৃদ্ধাঙ্গুলির ছাপ দিতে হবে। আমরা এখন ডিজিটাল বাংলাদেশে বসবাস করছি। সব ক্ষেত্রেই ডিজিটালাইজেশন হচ্ছে। সেই ধারাবাহিকতায় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে ডিজিটাল হাজিরা চালু হলো। এটা নিঃসন্দেহে ভালো উদ্যোগ।

সবাই সময়মতো অফিসে আসবেন, কাজ করবেন। আমরা কাজ চাই। আশা করি এর মাধ্যমে কাজের গতি আরো বাড়বে। পরিকল্পনা বিভাগ সচিব নূরুল আমিন বলেন, সবাইকে ডিজিটাল হাজিরা দিতে হবে। সময়মতো কেউ অফিসে না এলে বেতন কাটা হবে। প্রতিদিন সময়মতো অফিসে আসতে হবে। এর মাধ্যমে অফিস ফাঁকি দেয়ার সুযোগ থাকে না। কারণ এতে কর্মকর্তা-কর্মচারীর সব হাজিরার বিষয় রেকর্ড থাকবে।