এক লাখ মানুষের মাথা লাগবে

অপরাধ জেলা বার্তা

চলমান পদ্মা সেতু নির্মাণে এক লাখ মানুষের মাথা লাগবে বলে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার অভিযোগে দিনাজপুর কোতয়ালী থানা পুলিশ মোস্তফা মনোয়ার হোসেন (৩৫) নামে এক বীমা কর্মকর্তাকে আটক করেছে।বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দিনাজপুর পুলিশ লাইনস অডিটোয়ামে সাংবাদিকদের এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার সৈয়দ আবু সায়েম।আটকের সময় তার কাছ থেকে ১টি ল্যাপটপ, ১টি মডেম, ২টি মোবাইল ফোন ও ৩টি সিম উদ্ধার করা হয়।এর আগে বুধবার দিবাগত রাত ২টায় তাকে নিজ বাসা থেকে আটক করা হয়। আটক মোস্তাফা মনোয়ার হোসেন দিনাজপুর সদর উপজেলার ৬নং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের মহরমপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে।মোস্তফা মনোয়ার দিনাজপুর শহরের চারুবাবুর মোড় শাখা ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ব্রাঞ্চ ম্যানেজার। প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার সৈয়দ আবু সায়েম জানান, রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিনাজপুর কোতয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বজলুর রশিদের নেতৃত্বে পুলিশের একটি অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এ সময় গুজব ছড়ানোর অভিযোগে তাকে আটক করা হয়। প্রাথমিকভাবে মোস্তফা মনোয়ার গুজবের সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছে। অভিযান অব্যাহত আছে তাই আরো বিস্তারিত কিছু এই মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়।ফেসবুকেমোস্তফা মনোয়ার লিখেছেন, ‘চলমান পদ্মা সেতু নির্মাণে বাধা সৃষ্টি হয়েছে, সেখানে এক লাখ বা তার অধিক পরিমাণ মানুষের মাথার প্রয়োজন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সারাদেশে ৪২টি দল মাথা সংরক্ষণ করার জন্য কাজ করছে।ধারালো ছুরি দিয়ে মাথা কেটে নেওয়া বা বিষাক্ত গ্যাস ১০ থেকে ১৫ হাত দূর থেকে স্প্রে করার পরে অজ্ঞান হলে মাথা কেটে নেয়। খুলনায় অনেক মানুষের মাথা কেটে নেওয়া হয়েছে।’আটক মনোয়ারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার জানান।

প্রেস ব্রিফিংয়ে অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মাহফুজ্জামান আশরাফ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) কাজেম উদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ড. রুহুল আমিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুশান্ত সরকার, দিনাজপুর কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেদওয়ানুর রহিম, পরিদর্শক (তদন্ত) বজলুর রশিদ উপস্থিত ছিলেন।