বিপিএলের টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার তালিকায় আছেন যারা

খেলা বার্তা

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের বিশেষ আসর বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ‘টুর্নামেন্ট অফ দ্য প্লেয়ার’ হওয়ার দৌড়ে আছেন দেশি-বিদেশি ক্রিকেটাররা। তবে বিদেশি থেকেও দেশি খেলোয়াড়রা বেশ এগিয়ে বিপিএলের টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার লড়াইয়ে।

টুর্নামেন্ট সেরা ক্রিকেটার নির্বাচন করবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) টেকনিক্যাল কমিটি। তবে কাজটা মোটেও সহজ হবে না। কেননা পারফর্মারতো বেশ কয়েকজন। তাইতো টুর্নামেন্ট সেরা নির্বাচনে বিপাকে পড়তে হবে কমিটিকে। তারপরও চলুন দেখে নিব টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার দৌড়ে কে কতটুকু এগিয়ে আছেন…..

মুশফিকুর রহিম (খুলনা টাইগার্স):- টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার লক্ষ্যে সবার থেকে এগিয়ে থাকবেন মিঃ ডিপেন্ডেবল’র মুশফিকুর রহিম। বিপিএলে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক এই ডানহাতি। ১৩ম্যাচে ৭৮.৩৩ গড়ে ৪৭০ রানে করেন তিনি। রান এবং অধিনায়কত্ব করে দলকে ফাইনালে তুলতে দারুণ ভুমিকা রেখেছেন মুশফিক। যেখানে টপ স্কোয়ারার মুশির ৪টি ফিফটির ৩টি ম্যাচ জেতানো ইনিংস। তাইতো টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার লাইনে সবার সামনে বগুড়ার এই ক্রিকেটার।

ইমরুল কায়েস (চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স):- জাতীয় দলে আসা যাওয়ার মধ্যে থাকা ইমরুল এবার বিপিএলে নিজের জাত চিনিয়েছে। যেখানে ১২ ম্যাচে ৫৪.৬২ গড়ে করেন ৪৩৭ রান। চট্টগ্রামের হয়ে খেলা এই বাঁহাতিও টুর্নামেন্ট সেরার দৌড়ে কম যান না। কেননা ৪ অর্ধশতকের ৪ টিতে ম্যাচ জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখেন কায়েস।

লিটন দাস (রাজশাহী রয়্যালস):- মুশফিক ও ইমরুলের মত চারশ রান পার করা লিটন দাসও টিম পারফর্মেন্সে দারুণ ভুমিকা রেখেছে। রাজশাহীর হয়ে খেলা এই ওপেনার ১৩ ম্যাচে ৩৫.৩৩ গড়ে করেন ৪২৪ রান। একটি অর্ধশতক হাঁকালেও সেটি ছিল ম্যাচ জেতানো ইনিংস। এছাড়া ওপেনিংয়ে নেমে দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দিয়েও ম্যাচ জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখেন দিনাজপুরের এই ক্রিকেটার।

সৌম্য সরকার (কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স):- নিষিদ্ধ হওয়ার কারণে বাংলাদেশের পোস্টার বয় সাকিব এবারের বিপিএলে না থাকলেও তার জায়গা ধরে রেখেছেন সৌম্য সরকার। অলরাউন্ডার পারফরম্যান্সে সাকিব গতবছর টুর্নামেন্ট সেরা হলেও তার জায়গায় দুর্দান্ত অলরাউন্ডার পারফরম্যান্স করছেন সৌম্য সরকার। যেখানে ১২ ম্যাচে ৩৩.১০ গড়ে ৩৩১ রান এবং বল হাতেও নেন ১২ উইকেট। তবে এক জায়গায় আটকে থাকবেন সৌম্য। সাকিবের দল গত বছর ফাইনালে উঠলেও এবারের আসরে সৌম্যর দল গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে।

রাইলি রুশো (খুলনা টাইগার্স):- বিদেশি ক্রিকেটারের মধ্যে সবার উপরে থাকবে রাইলি রুশো। দক্ষিণ আফ্রিকার এই ক্রিকেট ১৩ ম্যাচে ৪৫.৮০ গড়ে করেন ৪৫৮ রান৷ যেখানে ৪ ফিফটির ৩টি ম্যাচ জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে৷ এছাড়া সবচেয়ে বড় কারণ হতে পারে তার দল খুলনা এখন ফাইনালে।

শোয়েব মালিক (রাজশাহী রয়্যালস):- বিদেশি ক্রিকেটারের মধ্যে দ্বিতীয় সম্ভাবনাময় রাজশাহীর হয়ে খেলা শোয়েব মালিকের। পাকিস্তানি এই ক্রিকেটার ১৩ ম্যাচে ৪৩.২৯ গড়ে করেন ৪৩২ রান। সেই সাথে বল হাতে নেন ৫টি উইকেট। যেখানে ৩টি অর্ধশতকও আছে তার নামের পাশে।

এছাড়াও – আফিফ হোসেন, রুবেল হোসেন, মেহেদী হাসান রানা, রবি ফ্রাইলিংক, মোহাম্মদ আমিররাও টুর্নামেন্ট সেরা হবার দৌড়ে থাকবে।