নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে শাহবাগে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

রাজনীতি বার্তা

ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে নির্বাচন কমিশন (ইসি) কার্যালয়ের অভিমুখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীদের পদযাত্রা ও শাহবাগে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন তারা।

বুধবার (১৫ জানুয়ারি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা এ কর্মসূচি পালন করছেন।

এর আগে মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) রাত ৭টা ২০ মিনিটের দিকে শাহবাগ মোড় অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহারের আগে এ ঘোষণা দেন জগন্নাথ হল ইউনিয়নের সহ সভাপতি ও হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক উৎপল বিশ্বাস।

এর আগে সরস্বতী পূজার কারণে ভোটগ্রহণের তারিখ পেছানোর নির্দেশনা চেয়ে করা রিট আবেদন খারিজ করে হাইকোর্ট আদেশ করা হলে মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে ঢাবির বিভিন্ন হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা শাহবাগ মোড় অবরোধ করেন। তারা নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে শাহবাগে অবস্থান নেন।

উৎপল বলেন, এটা খুবই দুঃখের বিষয় যে নির্বাচন কমিশন ৩০ জানুয়ারি দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করেছে। বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় সংগঠন তারিখ পরিবর্তনের দাবি জানালেও কমিশন কর্ণপাত করছে না।

সেসময় নির্বাচন কমিশন কার্যালয় ঘেরাওয়ের হুমকি দিয়ে তিনি বলেন, ‘এই সময়ের (বুধবার সকাল ১১টা) মধ্যে যদি নির্বাচন কমিশন তারিখ পরিবর্তন না করে তাহলে ১১টার পর দুর্নীতিবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে থেকে কমিশন কার্যালয়ের দিকে গণপদযাত্রা শুরু করা হবে এবং ইসি কার্যালয় ঘেরাও করা হবে।’

জগন্নাথ হল ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক কাজল দাস বলেন, ‘আমরা মনে করি পূজার দিন ভোটগ্রহণের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক। আমরা এর নিন্দা জানাচ্ছি, আশা করছি নির্বাচন কমিশন তাদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবে।’

এরআগে, গত ৬ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ সারাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম বড় ধর্মীয় উৎসব সরস্বতী পূজা উদযাপনের জন্য দুই সিটি করপোরেশনের ভোটগ্রহণের তারিখ পেছানোর নির্দেশনা চেয়ে রিট আবেদন করেন।

গত ২২ ডিসেম্বর প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। তফসিল অনুযায়ী, ৩০ জানুয়ারি দুই সিটি নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।