সকাল-বিকাল নির্বাচনী পরিবেশের রূপ পাল্টাচ্ছে: তাবিথ

রাজনীতি বার্তা

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরশনের বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল দাবি করেছেন, নির্বাচনী পরিবেশ সকালে এক রূপ আর বিকালে আরেক রূপ ধারণ করে। সকালে প্রচারণা চালাতে পারলেও বিকালে বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীসহ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পশ্চিম তেজতুরি বাজার এলাকায় গণসংযোগকালে তিনি এই দাবি করেন।

এর আগে বেলা ১১টায় বসুন্ধরা সিটি মার্কেটের সামনে থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রচারণা শুরু করেন তাবিথ আউয়াল। এ সময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, বুধবার বিকালে এক নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীর প্রচারণায় হামলা চালিয়ে পাঁচজনকে আহত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ধানের শীষের গণজোয়ার দেখে ভয়ে হামলা ও হুমকি দিচ্ছে। তারা চেষ্টা করছে ভোটাররা যেন ৩০ জানুয়ারি ভোটকেন্দ্রে না যায়। যতই চেষ্টা করুক, জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে। আমরা শান্তিপূর্ণভাবে ৩০ তারিখ বিজয় নিয়ে আসবো।

পূজার দিন নির্বাচন দিয়ে সরকার সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়েছে এমন মন্তব্য করে তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘আমি হিন্দু ভাই-বোনসহ সব ধর্মের সবাইকে আহ্বান জানাচ্ছি, তাদের প্রতি যে অবিচার করা হয়েছে, সেটার জবাব তারা ৩০ জানুয়ারি ধানের শীষে ভোট দিয়ে দেবেন।

তাবিথ বলেন, ‘আমরা আগেও বলেছিলাম যে দুর্গাপূজার সময় যেন রংপুরের নির্বাচন না দেওয়া হয়। কিন্তু নির্বাচন কমিশন সরকারের কথা শুনে দুর্গাপূজার মাঝখানে নির্বাচন দিয়েছিল। আমাদের হিন্দু সম্প্রদায়ের ভাই-বোনেরা তখনও আঘাত পেয়েছিলেন। এবারেও দেখছি ওনারা সরস্বতী পূজা বানচাল করার জন্য নির্বাচন দিয়েছে। এখানে অন্যকিছুকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে, কিন্তু ধর্মকে প্রাধান্য দেওয়া হয়নি।

ঢাকা উত্তরে বিএনপির এই মেয়রপ্রার্থী বলেন, ঢাকা সিটির ৩০ লাখ ভোটার ইভিএম এখনও রপ্ত করতে পারেনি। তাছাড়া এটি একটি ত্রুটিপূর্ণ পদ্ধতি। ইভিএম দিয়ে ভোট চুরি করা যায়। ইভিএম পদ্ধতি বাতিল করে ব্যালটেই ভোট দেওয়ার দাবি করছি।

তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘ধানের শীষের পক্ষে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। সবাইকে আহবান জানাচ্ছি। আমরা শান্তিপূর্ণভাবে প্রচারণা চালিয়ে যাব। জনগণ ভোট দিতে পারলে বিজয় সুনিশ্চিত।

এক প্রশ্নের জবাব বিএনপির এই মেয়রপ্রার্থী বলেন, ‘গত দশ বছর সরকারি দলের মেয়র ছিল। কিন্তু ঢাকা শহর পৃথিবীর বসবাসের অযোগ্য শহরের তালিকার শীর্ষে স্থান নিয়েছে। অপরদিকে সিলেটে বিএনপির মেয়র অভাবনীয় কাজ করে বিশ্ববাসীর নজর কেড়েছেন। সুতরাং কাজের ইচ্ছা থাকলে বিরোধী দলে থাকলেও কাজ করা যায়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, নিপুন রায় চৌধুরী, ঢাকা মহানগর বিএনপি উত্তরের সহসভাপতি মুনসী বজলুল বাসিদ আঞ্জু, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল, সিনিয়র সহসভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সহ সভাপতি গোলাম সরোয়ার, কমিশনার প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ।