ফেরিঘাটে স্কুলছাত্রের মৃত্যু: ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

জেলা বার্তা

মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ী ১ নম্বর ফেরিঘাটে ভিআইপির অপেক্ষায় প্রায় তিন ঘণ্টা ফেরি না ছাড়ায় অ্যাম্বুলেন্সে স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুতে তিন কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট হয়েছে। গতকাল জনস্বার্থে মানবাধিকার সংগঠন লিগ্যাল সাপোর্ট অ্যান্ড পিপলস রাইটসের চেয়ারম্যান আইনজীবী মো: জহিরুদ্দিন লিমন হাইকোর্টে রিটটি করেন।

রিট আবেদনে তিতাসের মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল, ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ এবং যেকোনো মুমূর্ষু রোগীর ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ফেরি পারাপার নির্বিঘœ করার আর্জি জানানো হয়েছে।বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চে এ রিটের শুনানি হতে পারে বলে রিটকারী আইনজীবী জানিয়েছেন।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ী ১ নম্বর ফেরিঘাটে সরকারের এটুআই প্রকল্পের যুগ্ম সচিব আব্দুস সবুর মণ্ডলের গাড়ির অপেক্ষায় প্রায় তিন ঘণ্টা ফেরি বসে থাকায় ঘাটে আটকে পড়া অ্যাম্বুলেন্সে স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যু হয়। এরপর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তিতাসের মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়।

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নড়াইল কালিয়া পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শেণীর ছাত্র তিতাস ঘোষ গুরুতর আহত হয়। ওই সময় তাকে খুলনার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তার পরিবার আইসিইউ সংবলিত একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই তাকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়।