যে কারনে বিদায়ী উপহার পাচ্ছেন না গেইল

খেলা বার্তা

বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার আগেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, আরেকটি টেস্ট খেলতে চান। ৩৯ বছর বয়সে নিজের শেষ বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া গেইল জানিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শেষ টানার জন্য একটি বিদায়ী টেস্টের অপেক্ষায় আছেন। কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজের নির্বাচকেরা আবেগে গা ভাসাননি। ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে থাকলেও টেস্ট সিরিজের দলে ডাকা হয়নি গেইলকে।

বিশ্বকাপে যখন নিজের ইচ্ছের কথা জানিয়েছিলেন গেইল, তখনই এ ব্যাপারে ইতিবাচক মত পাওয়া যায়নি। কিংবদন্তি কার্টলি অ্যামব্রোস সোজাসাপ্টা বলেছেন, এভাবে এক ম্যাচের জন্য গেইলকে দলে নেওয়া হলে সেটা দলকে ভুল বার্তা দেবে। অ্যামব্রোসের পক্ষে যুক্তিও আছে। টেস্টে ৩৩৩ রানের অনবদ্য এক ইনিংসের মালিক গেইল ১০৩টি ম্যাচ খেলেছেন। তাতে ৭ হাজার ২১৪ রানও করেছেন। কিন্তু এসবই ৫ বছর পুরোনো স্মৃতি। ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে সর্বশেষ টেস্ট খেলা গেইলকে ভারতের মতো দলের বিপক্ষে ডাকার ঝুঁকি তাই নেয়নি উইন্ডিজ বোর্ড।

আগামী বুধবার ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শেষ হবে। ফলে গেইলকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শেষবারের মতো দেখার সুযোগও হয়তো সেদিনই হবে। অথচ রূপকথার মতো ক্যারিয়ার শেষ করার সুযোগ এসেছিল গেইলের সামনে। টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটির ভেন্যু জ্যামাইকার স্যাবাইনা পার্কে। আপাতত যে অবস্থা, নিজের ঘরের মাঠে নিজের দর্শকের সামনে থেকে বিদায় নেওয়ার সে সুযোগ আর পাচ্ছেন না গেইল।

বছরের শুরুতে ইংল্যান্ডকে হারানো দলেই আস্থা রেখেছেন নির্বাচকেরা। শুধু চোটগ্রস্ত পেসার আলজারি জোসেফ ও স্পিনার জোমেল ওয়ারিকান বাদ পড়েছেন। সে জায়গায় সুযোগ হয়েছে রাহকীম কর্নওয়েল ও শামার ব্রুকসের।