অ্যামাজনের জন্য লিওনার্দোর ৫০ লাখ ডলার

বিবিধ

সামাজিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকেন তারকারা। হলিউডে এমন তারকার সংখ্যাটাই বেশি। কিছুদিন আগেই জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য মিউজিশিয়ান ডেভিড গিলমোর তার পছন্দের গিটার নিলামে তোলেন। অন্যদিকে ‘কুইন’ ব্যান্ডের গিটারিস্ট ব্রিয়ান মে তাদের ‘লাইভ এইড’ কনসাটের্র মতো আরো একটি কনসার্টের উদ্যোগ নেন। সেটিও পরিবেশের জন্য।এবার জানা গেল অস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। তার প্রতিষ্ঠান আর্থ অ্যালায়েন্সের মাধ্যমে দাবানলে ক্ষতিগ্রস্ত আমাজনকে বাঁচাতে ৫০ লাখ ডলার দেওয়ার অঙ্গীকার করেছেন।পৃথিবীর জলবায়ু ও পরিবেশ পরিবর্তন মোকাবিলায় জরুরি ভিত্তিতে কাজ করার লক্ষ্য নিয়ে লিওনার্দো তার দুই বন্ধু লরিন পাওয়েল জবস ও ব্রিয়ান শেথকে নিয়ে তৈরি করেছেন আর্থ অ্যালায়েন্স। জুলাই মাসে দ্য লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও ফাউন্ডেশন সংযুক্ত হয়ে যায় আর্থ অ্যালায়েন্সের সঙ্গে।

আর্থ অ্যালায়েন্সের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, কো-অর্ডিনেশন অফ দ্য ইনডিজিনাস অর্গানাইজেশন অফ দ্য ব্রাজিলিয়ান অ্যামাজনসহ ইনস্টিটিউটো কাবু, ইনস্টিটিউটো রাওনি ও ইনস্টিটিউটো সোশিও অ্যামবিয়েন্টাল পেতে যাচ্ছে এই অর্থ সহায়তা। এর আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যামাজন পোড়ার একটি ছবি দিয়ে লিও লেখেন, ‘পৃথিবীর ফুসফুস বলা হয় অ্যামাজনকে। অথচ এটি পুড়ছে দুই সপ্তাহ ধরে, কিন্তু কোনো মিডিয়া কভারেজ নেই। এটা কেন?’

প্রকৃতি নিয়ে বরাবরই সোচ্চার লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। এর আগেও অ্যামাজন নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। তার এমন সচেতনতার বিষয়টি বিশ্বের অন্য তারকাদেরও অনুপ্রেরণা জোগাবে। পৃথিবীর ফুসফুসকে বাঁচাতে এগিয়ে এসে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে যাচ্ছেন জনপ্রিয় এই অভিনেতা।