জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে যুবকের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা

বিবিধ

বরিশালের উজিরপুর উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সোহাগ হাওলাদার (৩২) নামে এক যুবকের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এ সময় তার স্ত্রী নুপুর বেগম বাধা দিতে গেলে তাকেও কুপিয়ে আহত করা হয়। আহত দম্পতিকে উদ্ধার করে উজিরপুর হাসপাতালে ভর্তি করেছে স্থানীয়রা।মঙ্গলবার উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের পূর্ব জয়শ্রী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।আহতদের স্বজনরা জানান, সোহাগ হাওলাদারের সঙ্গে ২৩ শতাংশ জমি নিয়ে একই গ্রামের বারেক হাওলাদারের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। ওই জমির কিছু অংশে কয়েক মাস আগে দোকান নির্মাণ করেন সোহাগ হাওলাদার। এতে বারেক হাওলাদার ক্ষুব্ধ হন। মঙ্গলবার বারেক হাওলাদার ও তার স্ত্রী হেনা বেগম, মেয়ে ইয়াসমিন বেগম, শিল্পি বেগম ও কয়েকজন সহযোগী নিয়ে ওই জমি দখলের চেষ্টা করেন। তারা সোহাগ হাওলাদারের দোকান ভাঙচুর করলে সোহাগ হাওলাদার বাধা দেন। এ সময় তার পুরুষাঙ্গ কুপিয়ে কেটে দেন তারা।

ঘটনার সময় সোহাগের স্ত্রী নুপুর বেগম এগিয়ে গেলে তাকেও কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উজিরপুর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে আহতদের স্বজনরা জানিয়েছেন।উজিরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক তানভির আহম্মেদ জানান, ওই যুবকের পুরুষাঙ্গে ধারালো কিছু দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। সে কারণে ক্ষত হয়েছে। সেলাই করা হয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল বা ঢাকায় যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

উজিরপুর থানা পুলিশের ওসি শিশির কুমার পাল জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনা শুনেছি। তবে এ ঘটনায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।