পাসপোর্ট করাতে গিয়ে এক রোহিঙ্গা তরুণীকে গ্রেপ্তার

বিবিধ

কক্সবাজারে পাসপোর্ট করাতে গিয়ে এক রোহিঙ্গা তরুণীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁর সঙ্গে পিতা পরিচয় দেওয়া এক বাংলাদেশি ব্যক্তিকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরে দু’জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। গ্রেপ্তারকৃত রোহিঙ্গা তরুণীর নাম রশিদা (১৮) এবং ভুয়া পিতা মনজুর আলম।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে কক্সবাজারে তাঁদের কারাদণ্ড দেওয়ার পর তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।আটক রোহিঙ্গা তরুণী হলেন- রশিদা (১৮)। তিনি মিয়ানমারের মংডুর আবদুল আমিনের মেয়ে এবং ভুয়া পিতা মনজুর আলম কক্সবাজার সদরের পোকখালী ইউনিয়নের নাইক্ষ্যংদিয়া এলাকার বাসিন্দা।কক্সবাজার আঞ্চলিক পার্সপোর্ট অফিসের সহকারি পরিচালক আবু নাঈম গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে তাঁরা পিতাকন্যা পরিচয়ে কক্সবাজার আঞ্চলিক পার্সপোর্ট অফিসে পাসপোর্ট করতে আসে। বিষয়টি পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তাদের সন্দেহজনক মনে হওয়ায় তাঁর ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে সার্ভারে পরীক্ষা করা হয়। এতে রোহিঙ্গা ডেটাবেজে থাকা তাঁর পরিচয় বের হয়ে আসে।এরপর ভ্রাম্যমাণ আদালতে উভয়কে হাজির করে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়ে জেল হাজতে পাঠানো হয়