তল্লাশি ছাড়া বিমানবন্দরে ভিআইপি প্রবেশের প্রস্তাব নাকচ

জাতীয় বার্তা

সংসদ সদস্যসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের (ভিআইপি) বিমানবন্দরে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা তল্লাশি শিথিল করতে সংসদীয় কমিটির প্রস্তাব নাকচ করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। বুধবার সংসদ ভবনে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ষষ্ঠ বৈঠকের কার্যপত্র থেকে এ তথ্য জানা যায়। বেবিচক বলেছে, ইন্টারন্যাশনাল সিভিল অ্যাভিয়েশন অর্গানাইজেশনের (আইসিএও) আইন ও দেশের নিরাপত্তার স্বার্থে কাউকে এ ধরনের কোনো ছাড় দেওয়ার সুযোগ নেই।

কমিটির সভাপতি র, আ, ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, কাজী ফিরোজ রশীদ, তানভীর ইমাম, আশেক উল্লাহ রফিক এবং সৈয়দা রুবিনা আক্তার বৈঠকে অংশ নেন।

বেবিচকের সহকারী পরিচালক (অর্থ বিভাগ) মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান এবং পরিচালক (পরিকল্পনা ও প্রশিক্ষণ) মোহাম্মদ সাঈদ হোসাইন মুরাদী স্বাক্ষরিত প্রতিবেদনে এসব উল্লেখ করা হয়।গত ৭ এপ্রিল কমিটির বৈঠকে দেশের সব আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দরে বিচারপতি, সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রীদের আলাদা তল্লাশি শিথিল এবং তাদের জন্য আলাদা লাইন করার সুপারিশ করা হয়।

এর জবাবে ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অর্গানাইজেশনের (আইসিএও) আইনের বিধান ও ন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন সিকিউরিটি প্রোগ্রামের (এনসিএএসপি) বিধানের কথা তুলে ধরে বেবিবচক তা নাকচ করে দিয়েছে।এনসিএএসপি অনুযায়ী কেউই নিরাপত্তা তল্লাশির ‘আওতামুক্ত নন’ জানিয়ে বেবিচকের প্রতিবেদনে বলা হয়, সুনির্দিষ্ট সরকারি নির্দেশনার অভাবে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক টার্মিনালে যাত্রীদের নিরাপত্তা তল্লাশি করতে গিয়ে নিরাপত্তা বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা প্রায়ই বিব্রত হচ্ছেন।

“নিয়ম অনুযায়ী এক্সাম্পট ফ্রম সিকিউরিটি স্ক্রিনিংয়ের আওতাভুক্ত ব্যক্তির বাইরে বিমানবন্দর তথা দেশের নিরাপত্তার স্বার্থে কাউকে কোনো ছাড় দেওয়ার সুযোগ নেই। তবে ওই তালিকার বাইরে সরকার কর্তৃক সুনির্দিষ্ট তালিকা প্রদান করা হলে তা প্রতিপালন করা হবে।”এনসিএএসপিতে কেবল রাষ্ট্রপতি ও তার পরিবার, প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবার এবং জাতিসংঘ মহাসচিবকে নিরাপত্তা তল্লাশি থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে।

ওই তালিকায় জাতির জনকের পরিবারের সদস্য, জাতীয় সংসদের স্পিকার, প্রধান বিচারপতি ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ/পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘোষিত কোনো ব্যক্তিকে নিরাপত্তা তল্লাশি থেকে অব্যহতি দিয়ে এনসিএএসপির সংশোধনী প্রস্তাব সরকারের বিবেচনায় রয়েছে।