ভালো লিখেও কম নম্বর, খারাপ লিখেও বেশি নম্বর!

শিক্ষা বার্তা

স্নাতক ও স্নাতকোত্তরে চূড়ান্ত পরীক্ষার উত্তরপত্রে রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর থাকায় পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন প্রভাবিত হওয়ার আশঙ্কা করছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

খাতায় এ নম্বরগুলো থাকায় মূল্যায়নকারী খুব সহজে কার কোন খাতা তা অনুমান করতে পারছেন। এতে স্বজনপ্রীতির আশঙ্কা রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। যে কারণে পরীক্ষার্থীদের চূড়ান্ত ফলাফলে প্রভাব পড়বে বলে মনে করেন শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষকের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারাও পরীক্ষার উত্তরপত্রে রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর রাখার বিপক্ষে। কয়েকজন শিক্ষকও বলেছেন, পরীক্ষার খাতায় পরিচয় শনাক্ত করার প্রক্রিয়া না থাকাই ভালো। এতে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি হতে পারে। তবে শিক্ষকদের কেউ কেউ মনে করেন তাদের উত্তরপত্র দেখার সময় কোনোরকম প্রভাব পড়ে না।বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দপ্তরের সূত্রে জানা যায়, পরীক্ষা গ্রহণের নিয়ম অনুযায়ী শিক্ষার্থীকে তার রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর লিখতে হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিস্টার পরীক্ষার উত্তরপত্রের কপি থেকে দেখা গেছে, উত্তরপত্রের শুরুতে দেয়া পরীক্ষার্থীর জন্য নির্দেশনাবলীতে প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে অবশ্যই কভার পৃষ্ঠায় রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর সুস্পষ্টভাবে লিখতে বলা হয়। ফলে শিক্ষার্থীরা বাধ্য হয়েই পরীক্ষার খাতায় নিজের রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর লিখে থাকেন।ফলে পরীক্ষার খাতায় রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর থাকলে খাতা দেখার সময় খুব সহজেই শিক্ষকরা কোন শিক্ষার্থীর খাতা তা বুঝে ফেলেন। এতে খাতার দেখার সময় কোন শিক্ষার্থীকে কেমন গুরুত্ব দেয়া হবে তা তিনি আগেই বিবেচনায় নিয়ে খাতা যাচাই করেন বলে শিক্ষার্থীদের অভিযোগ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, উত্তরপত্রে পরিচয় শনাক্ত করতে পারায় শিক্ষকরা পছন্দ অনুযায়ী নম্বর দিয়ে থাকেন। কেউ ভালো লিখেও কম নম্বর পায়, আবার কেউ খারাপ লিখেও বেশি নম্বর পায়। এটা খুবই অপ্রত্যাশিত। প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করব উত্তরপত্রে যেন পরিচয় শনাক্ত করার প্রক্রিয়া না থাকে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ভারপ্রাপ্ত) নুরুল করিম চৌধুরী বলেন, উত্তরপত্রে রোল ও রেজিস্ট্রেশন কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে আছে, আবার কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে নেই। যেখানে এ নিয়ম নেই তারা খাতার সিরিয়াল নম্বরের সঙ্গে মিলিয়ে উত্তরপত্র মূল্যায়ন করেন। উত্তরপত্র মূল্যায়নে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রচলিত নিয়মে শিক্ষার্থীদের সমস্যা হলে এ নিয়ম পরিবর্তন করা হবে। তবে একটু সময় দরকার।

সূত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল।